1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. banglaronusandhantv@gmail.com : বাংলার অনুসন্ধান : বাংলার অনুসন্ধান টিভি
মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৫:১১ অপরাহ্ন
"
শিরোনাম
মাগুরায় কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের নব নির্বাচিত বেসরকারী সংস্থা বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামানের কবর জিয়ারত করলেন যেভাবে সরকারি প্রাইমারি শিক্ষক পদে আবেদন করবেন মাগুরায় কোলাহল পত্রিকার ফটো সাংবাদিক হিসাবে নিয়োগ পেলেন দাউদ জোয়ার্দার মাগুরার শ্রীপুরে ৫নং দ্বারিয়াপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সবুরের পক্ষ থেকে শারদীয় দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা মাগুরার শ্রীপুরে দুস্থ শিক্ষার্থীদের কম্পিউটার ও আইটি প্রশিক্ষণ কার্যক্রম উদ্বোধন মাগুরায় শেখ রাসেলের ৫৭ তম জন্মদিন পালন মাগুরায় শেখ রাসেলের জন্মদিনে যুবলীগের নানা কর্মসূচি পালিত আজ শেখ রাসেলের জন্মদিন মাগুরায় শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে যুবলীগের বিভিন্ন কর্মসূচি বন্ধ হচ্ছে না ইন্টারনেট

‘জিন’ বদলে করোনা হয়েছে খুবই ভয়ংকর

  • আপডেট করা হয়েছে বুধবার, ২৭ মে, ২০২০
  • ২০ বার পড়া হয়েছে


চট্টগ্রামে রূপ বদলে অনেকটাই জটিল হয়ে উঠছে করোনাভাইরাস। চিকিৎসকরা বলছেন, শনাক্তের সংখ্যা বাড়ার পাশাপাশি আক্রান্ত রোগীদের ওপর ভাইরাসের প্রভাবের ক্ষেত্রেও ঘটেছে আশংকাজনক পরিবর্তন। প্রথম দিকে শনাক্ত হওয়া রোগীদের বেশিরভাগের মধ্যেই কোনো উপসর্গ না থাকলেও এখন দৃশ্যমান উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হওয়া রোগীর সংখ্যাও বাড়ছে। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও।

চট্টগ্রামে গত কয়েকদিন ধরে রীতিমতো লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। প্রথম এক মাসে যেখানে ৮১ জন করোনা পজিটিভ রোগী শনাক্ত হয়েছিল, সেখানে গত ১৫ দিনে শনাক্তের পরিমাণ প্রায় ১০ গুণ বেড়ে হয়েছে ৮৪৫ জন। এর মধ্যেই চিকিৎসকরা আভাস দিচ্ছেন, চট্টগ্রামে করোনাভাইরাস তার চরিত্র বদলাচ্ছে। তারা বলছেন, প্রথম দিকে শনাক্ত হওয়া রোগীদের বেশিরভাগের মধ্যেই কোনো উপসর্গ না থাকলেও এখন দৃশ্যমান উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হওয়া রোগীর সংখ্যাও বাড়ছে। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, চট্টগ্রামে করোনাভাইরাস শনাক্তের প্রথম ৩০ দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছিল। গত ১৫ দিনে সেই মিছিলে যোগ দিয়েছেন আরও ৩২ জন। তাছাড়া গত কয়েক দিনে নতুন শনাক্তদের মধ্যে প্রতিদিন প্রচুর শ্বাসকষ্ট, জ্বর, কাশিসহ নানান দৃশ্যমান উপসর্গ নিয়ে হাসপাতাল এসেছেন। এসব কারণে চিকিৎসকরা আশংকা করছেন চট্টগ্রামে ইতোমধ্যে হয়তো করোনা জিন পরিবর্তন হয়েছে। প্রথমদিকে অনেকটা সাদামাটা থাকলেও এই পর্যায়ে এসে আগের চেয়েও ভয়ংকর হয়ে উঠছে ভাইরাসটি।

চট্টগ্রামে করোনা চিকিৎসায় বিশেষায়িত জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. আব্দুর রব চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমরা ধারণা করছি চট্টগ্রামে করোনাভাইরাস তার চরিত্র বদলেছে। গত কয়েকদিন ধরে হাসপাতালে যারা আসছেন, তাদের মধ্যে মোটামুটি ২০ শতাংশ রোগীর মধ্যে শ্বাসকষ্ট রয়েছে। প্রথম এক মাসে এটি ২-৩ শতাংশের মত ছিল।’

তিনি বলেন,‘গত কয়েকদিনে মৃত্যু সংখ্যাও বেড়েছে অনেক। এদের মধ্যে বয়সে অপেক্ষাকৃত তরুণও আছেন কয়েকজন। প্রথম দিকে পজিটিভ হওয়া রোগীদের চেয়ে এখন যারা পজিটিভ হচ্ছেন তাদের অবস্থা তুলনামূলকভাবে খারাপ। তাই ধারণা করছি এর মধ্যে হয়তো ভাইরাসটির জিন পরিবর্তন হয়েছে। ফলে রোগীদের শরীরে তার প্রভাবেও পরিবর্তন এসেছে। তবে এটি এখনই আমরা নিশ্চিত করে বলতে পারছি না। আমরা আরও সপ্তাহখানেক সময় নিতে চাই।’

‘আমাদের ১০টি আইসিইউ বেডের সবগুলোতেই রোগী আছে, যাদের সবাই শ্বাসকষ্টে ভুগছে। দুই একজনের অবস্থা বেশি খারাপ’—যোগ করেন ডা. আব্দুর রব।

চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা শুরু হয় ২৫ মার্চ। প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ৩ এপ্রিল। এক মাস পর ৩ মে পর্যন্ত চট্টগ্রামে মোট করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছিলেন ৮১ জন, যাদের ২০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন আর মারা গেছেন ৬ জন রোগী। মাত্র ১৫ দিন পরে ১৮ মে মোট করোনা পজিটিভ শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়ায় ৮৪৫ জন। এই সময়ের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান আরও ৩২ জন। সবমিলিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন ৩৮ জন। অন্যদিকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১১৫ জন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
প্রকাশক কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত

Designed by: Nagorik It.Com