1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. banglaronusandhantv@gmail.com : বাংলার অনুসন্ধান : বাংলার অনুসন্ধান টিভি
মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১২:৩৯ অপরাহ্ন
"

মাগুরা মহম্মদপুরের বাবুখালীতে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে উভয় পক্ষের ১০ জন আহত

  • আপডেট করা হয়েছে শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২০
  • ৩৫ বার পড়া হয়েছে

সুজন মাহমুদ, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি

মাগুরা মহম্মদপুর উপজেলার বাবুখালী ইউনিয়নের কুলিপাড়া গ্রামে বৃহস্পতিবার বিকেলে আধিপত্য বিস্তার ও জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে কমপক্ষে নারীসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।সংঘর্ষের ঘটনায় গুরুতর অাহত দের মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।এদের মধ্যে রবিন্দ্রনাথ বিশ্বাসের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন তার পরিবার।

উপজেলার বাবুখালীর কুলিপাড়া গ্রামের রবিন্দ্রনাথ বিশ্বাসের সাথে পাশ্ববর্তী নারায়ণ চন্দ্র মিত্রের জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল।ঘটনার দিন সকালে রবিন্দ্রনাথ বিশ্বাস বাথরুমের পাইপ জোড়ানোর সময় নারায়ণ মিত্র নিজের জমি দাবি করে বাধা দিলে উভয়ের মধ্য কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।এ ঘটনার জেরে তারা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রথমে দীলিপ বিশ্বাসের দোকানে এসে তাকে বেধরক মারপিট করে।এখবর ছড়িয়ে পড়লে উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের নারীসহ কমপক্ষে ১০ জন অাহত হন। আহতরা হলেন, রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাস, দীলিপ বিশ্বাস, রহিত বিশ্বাস, শুনীল বিশ্বাস, সজিব বিশ্বাস, সুভা রানী, স্মৃতি রানী, নরেশ মিত্র, সুমন মিত্র ও নারায়ণ মিত্র।সবাইকে মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রবিদ্রনাথ বিশ্বাসের ছেলে রহিত বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন, এই ছোট ঘটনায় কোন প্রকার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতো না। এলাকার প্রভাবশালী বাবুখালী ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা ইউপি সদস্য অঞ্জলি রানী বিশ্বাস ও তার স্বামী দীপুল বিশ্বাস এ ঘটনায় বিরোধীদের পক্ষ নিয়ে আমার বাবার হাত- পা, মাথা বুকে রড দিয়ে আঘাত করে গুরুতর আহত করে। এলাকায় তাদের অপর্কেমর সাথে আমরা না থাকায় আমাদের অপর ক্ষিপ্ত হয়ে এ প্রতিশোধ নিয়েছেন তারা।

এমন অভিযোগের ভিত্তিতে ১ নং বাবুখালী ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা সদস্য অঞ্জলি রানী বিশ্বাস ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
প্রকাশক কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত

Designed by: Nagorik It.Com