1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. banglaronusandhantv@gmail.com : বাংলার অনুসন্ধান : বাংলার অনুসন্ধান টিভি
শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ০৯:৫৪ পূর্বাহ্ন
"
শিরোনাম
শ্রীপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৭৮৯ পিচ ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করছে পুলিশ সারাদেশে ১৪ দিনের শাটডাউনের সুপারিশ !! ইন্টারনেট বিল বেশি নিলে অভিযোগ করবেন যেভাবে !! শ্রীপুরে আওয়ামী লীগের ৭২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন !! শ্রীপুরে আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত মাগুরায় আনসার ও ভিডিপির বৃক্ষরোপণ অভিযান শ্রীপুরে মুজিববর্ষ উপলক্ষে আনসার ও ভিডিপির বৃক্ষরোপণ অভিযান-২০২১ পাখি মাস্টার হত্যাকান্ডের বিচারের দাবিতে শিক্ষক সমাজের মানববন্ধন শ্রীপুরে ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে জমি ও গৃহ উপহার দিলেন প্রধানমন্ত্রী বর্ধিত ভাড়াতেও সব সিটে যাত্রী বহন !! বাংলার অনুসন্ধান

সুন্দরবনে বাঘের আক্রমণে দুই জেলে নিহত ভারতীয় ঝিল নদী পয়েন্টে

  • আপডেট করা হয়েছে রবিবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১১৯ বার পড়া হয়েছে

ইউনুস আলী, স্টাফ রিপোর্টারঃ

সুন্দরবনে বাঘের আক্রমণে ২ জেলে নিহত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

তবে,নিহত হওয়ার ঘটনায় নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে জনমনে।
বাঘের আক্রমণে যে দু’জনের নিহত হওয়ার খবর প্রচার হচ্ছে তারা হলেন, সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার কৈখালী ইউনিয়নের পশ্চিম কৈখালী গ্রামের কফিল উদ্দিন বাঙালের ছেলে রতন (৪২) এবং একই গ্রামের মনো মিস্ত্রির ছেলে মিজানুর রহমান (৪০)। এছাড়া বাঘের আক্রমণ থেকে বেঁচে যাওয়া আরেক বাংলাদেশি যুবক হলেন জয়খালী গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে আবু মুসা। তারা বাঘের আক্রমণে নিহত হয়েছেন বলে প্রচার হলেও স্থানীয়দের ধারণা মৃত্যুর অন্য কোনো কারণ থাকতে পারে। নিহতদের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বুধবার রতন, মিজান ও মুসা একসঙ্গে কাঁকড়া ধরার জন্য সুন্দরবনে যান।
তারা ভুলবশত ভারতীয় ঝিল নদীসংলগ্ন বাকশা খালের বড়মুখো ছোটমুখো পয়েন্টে ঢুকে পড়ায় সেখানেই বাঘের আক্রমণের শিকার হন।
মানুষখেকো বাঘটি প্রথমে মিজানের ওপর হামলা করে। মিজান তার হাতে থাকা ধারালো অস্ত্র দিয়ে আত্মরক্ষার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। এ সময় তাকে ঠেকাতে তার সঙ্গী রতন বাঘের ওপর পাল্টা হামলা চালায়। এ সময় বাঘ মিজানকে ছেড়ে রতনের ওপর আক্রমণ করে। ঘটনাস্থলেই দুজনের মৃত্যু হয়। দুজনের সঙ্গে বাঘের এই লড়াই দেখে আতঙ্কিত হয়ে মুসা নদীতে ঝাঁপ দেয়। মুসা ভারতীয় এলাকা থেকে শুক্রবার অপর নিহতের আত্মীয়’র মোবাইল ফোনে এই বর্ণনা দেয়ার পর থেকে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।
ভারতীয় সীমান্ত রক্ষিবাহিনী বিএসএফ লাশ দুটি খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করছে। এদিকে অপর একটি সূত্র জানিয়েছে, এখন সুন্দরবনের নদীতে চলছে ভাটিখার গোন। এ মুহূর্তে মাছ বা কাঁকড়া ধরতে যাওয়ার সুযোগ না থাকায় কোনো জেলে নদীতে নামেন না। সূত্রটি আরও জানায়, মিজানুর রহমান একজন চোরাকারবারি। তিনি স্থানীয় লতিফ-মামুন কয়ালের সঙ্গে গরু ও মাদক চোরাচালানির সঙ্গে জড়িত। নিহত মুসার পিতা আবদুস সাত্তার জানান, তার জামাই মিজান মুসাকে তার সঙ্গে ডেকে নিয়ে যায়। মুসা কখনও জঙ্গলে মাছ ধরতে যায় না বলে জানান। এ বিষয়ে কৈখালী বিজিবি কোম্পানি কমান্ডার জানান, ৩ জন কাঁকড়া আহরণকারী নিখোঁজ হয়েছে, তারা বাঘের আক্রমণে নাকি গরু পাচারের সময় বিএসএফের গুলিতে নিহত হয়েছে বা অন্য কিছু হয়েছে কিনা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে না। প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
প্রকাশক কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত

Designed by: Nagorik It.Com